President

ভারতের রাষ্ট্রপতি পদ থেকে অবসরে যাওয়ার পর প্রথম বিদেশ সফরে বাংলাদেশে আসছেন প্রণব মুখার্জি। আজ রোববার থেকে তার চার দিনের বাংলাদেশ সফর ঠাসা নানা কর্মসূচিতে। এর মধ্যে রয়েছে ঢাকায় আন্তর্জাতিক বাংলা সাহিত্য উৎসব থেকে শুরু করে চট্টগ্রামের রাউজানে সূর্য সেনের বাড়ি পরিদর্শন। কিন্তু এসব কর্মসূচি থাকলেও কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শনে যাচ্ছেন না ভারতের সদ্য সাবেক এ রাষ্ট্রপতি।


ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, বর্তমান সফরটিতে প্রণবের প্রত্যক্ষ কোনও রাজনৈতিক কর্মসূচি নেই ঠিকই। কিন্তু স্বাভাবিক ভাবেই এই গুরুত্বপূর্ণ প্রতিবেশী দেশে আসছেন তিনি কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে হাসিনার সঙ্গে ‘ট্র্যাক টু’ আলোচনা করতেই।

বাংলাদেশে জাতীয় নির্বাচনের প্রক্কালে ভারতের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কটিও এখন যথেষ্ট স্পর্শকতার জায়গায় দাঁড়িয়ে। তিস্তা চুক্তি এখনও সুদূরপরাহত। রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে নয়াদিল্লির অবস্থানে হতাশ বাংলাদেশ। প্রণব মুখার্জি রোহিঙ্গা শরণার্থীদের শিবিরে গেলে কিছুটা হলেও সুযোগ ছিল সেই ক্ষত মেরামতের। কিন্তু কূটনৈতিক সূত্রের খবর, মোদি সরকার সেই ঝুঁকি নিতে নারাজ। প্রণব মুখার্জি যদি চট্টগ্রামে না যেতেন, তা হলে রোহিঙ্গা শিবির যাওয়ার প্রসঙ্গই উঠত না। কিন্তু চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজারের রোহিঙ্গা শিবির আকাশপথে খুবই কাছে। প্রণব মুখার্জির ঘনিষ্ঠ সূত্রের জানা গেছে, তিনি নিজেও আগে ভেবেছিলেন রোহিঙ্গা শিবিরে যাবেন। এতে ভারত যে শরণার্থীদের প্রতি সহানুভূতিশীল সেই বার্তা যাবে।

কিন্তু ডানপন্থীদের বক্তব্য, প্রণব মুখার্জি গেলে আরও বেশি প্রশ্ন উঠবে। জানতে চাওয়া হতো, ভারত রোহিঙ্গা নিয়ে কী অবস্থান নিচ্ছে। ভারতের মিয়ানমার নীতি নিয়েও অস্বস্তিকর প্রশ্ন উঠে বিতর্ক বাড়তে পারে। আর তাই সচেতন ভাবেই এই না যাওয়ার সিদ্ধান্ত।

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/ এইচ কে/এস আর

১৪ জানুয়ারী, ২০১৮ ১১:৫১ এ.ম